1. admin@dashani24.com : admin :
  2. alamgirhosen3002@gmail.com : Alamgir Hosen : Alamgir Hosen
  3. afzalhossain.bokshi13@gmail.com : Md Haurn Or Rashid : Md Haurn Or Rashid
  4. lalsobujbban24@gmail.com : Md. Shahidul Islam : Md. Shahidul Islam
শনিবার, ০৩ ডিসেম্বর ২০২২, ০৯:২৭ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
ঠাকুরগাঁওয়ে নারী নির্যাতন, বাল্য বিবাহ, আত্মহত্যা ও মাদক প্রতিরোধকল্পে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত।  উৎসবমুখরপরিবেশে ঠাকুরগাঁওয়ের রুহিয়া থানা প্রেসক্লাবের দ্বি বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত  ফেনীর ফুলগাজীতে মাইক্রোবাস- মোটরসাইকেলের মুখোমুখি সংঘর্ষ, আহত -২ নান্দাইল পল্লী সঞ্চয় ব্যাংকের মাঠকর্মী জুটনের বিরুদ্ধে প্রতারনা ও দুর্নীতির অভিযোগ ছদ্মবেশে টিকিট কালোবাজারি ধরলেন দেওয়ানগঞ্জের ইউএনও শেষ মহূর্তে  ব্যাপক  প্রচার প্রচারণায় ব্যস্ত রুহিয়া থানা প্রেসক্লাবের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীরা    রাস্তার বেহাল দশা, মাটির টলি খাদে। আহত-২ শেরপুরে অবৈধ করাত কল বন্ধ ও রাস্তার গাছ কাটার অভিযোগ সেরা সংবাদদাতা হিসেবে সাংবাদিক হোসেন শাহ্ ফকিরের প্রথম ও দ্বিতীয় স্থান অর্জন ঝিনাইগাতীতে জমি সংক্রান্ত বিরোধে দিনমজুর গাজীকে হাত-পা বেঁধে নির্যাতন : গ্রেপ্তার-২

৩০ বছর যাবৎ বন্ধ নাগরপন্ধ গরুর হাট

  • আপডেট সময় : বুধবার, ৬ জুলাই, ২০২২
  • ৫৮ বার পঠিত

মোঃ আশরাফুল হক বাবু নাগরপুর (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি :

টাঙ্গাইলের নাগরপুরে নিজস্ব ইতিহাস-ঐতিহ্য হারিয়ে উপজেলার অন্যতম পুরোনো সাপ্তাহিক গরুর হাট প্রায় ৩০ বছর যাবৎ বন্ধ রয়েছে। নাগরপুর সদর হরিভক্তপাড়া কেন্দ্রীয় মন্দির এলাকা তৎকালীন “গরুর হাটি” নামেই সর্বাধিক পরিচিত ছিলো।

সদর বটতলা সংলগ্ন এই গরুর হাট সেই সময় পুরো জেলায় সমাদৃত ছিলো এবং দূর দুরান্ত থেকে বিক্রির জন্য গরু আসা সহ ক্রেতা-বিক্রেতার ব্যাপক পদাচরণে সব মিলিয়ে জমজমাট পরিবেশ বিরাজ করতো।

তৎকালীন হাটের সাথে সংশ্লিষ্ট সূত্র বলছে, অতিরিক্ত খাজনা আদায়, অব্যবস্থাপনা ও নিরাপত্তা ইস্যুতে পুরোনো এই ঐতিহাসিক গরুর হাট বন্ধ
হয়ে যায়। পরবর্তীতে বুধবার সাপ্তাহিক হাট সচল থাকলেও গরুর হাটে শৃঙ্খলা ফেরানোর চেষ্টা ও পুনরায় হাট চালু করণে কোনো জনপ্রতিনিধি বা সংশ্লিষ্টরা কেউ এগিয়ে আসেনি।

এ বিষয়ে স্থানীয় বাসিন্দা মো: আরিফ হোসেন বলেন, প্রায় ৩০ বছর নাগরপুর গরুর হাট বন্ধ আছে। আমি ছোট বেলায় এই হাটে একটি গরু বিক্রি করতে এনেছিলাম। তখন হাট ব্যাপক জাঁকজমক ছিলো। আমার মতে সেই সময় দুর্ভোগের যাতায়াত ব্যবস্থা ও অতিরিক্ত খাজনা নেওয়া এই গরুর হাট বন্ধের অন্যতম কারণ। দুয়াজানি এলাকার বাসিন্দা হাজী মো: আব্দুল হালিম জানায়, সেই সময়ে হাটে নিরাপত্তার অভাব ছিলো। ফলে ব্যবসায়ীরা হাটে আসা বন্ধ করে দিলে এক পর্যায়ে হাট বন্ধ হয়ে যায়।

তৎকালীন গরুর হাটের ইজারা সংশ্লিষ্ট কাজে জড়িত স্থানীয় বাসিন্দা মো: খোদা বক্স মিয়া জানায়, আমরা সেই সময় হাটে গরুর ব্যবসা করেছি ও ইজারা কাজে জড়িত ছিলাম।

তখন হাটে থাকা খাওয়া সহ অন্যান্য সুবিধার খারাপ অবস্থা ছিলো। ইজারা সিন্ডিকেট ও অতিরিক্ত খাজনা আদায় এই হাট বন্ধের অন্যতম কারণ।নাগরপুর উপজেলা সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো:সুজায়েত হোসেন বলেন, নাগরপুরের জনপ্রিয় এই গরুর হাট অব্যবস্থাপনার জন্য বন্ধ হয়ে গেছে।

এতে সরকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। হাট বন্ধ হওয়ায় নাগরপুরের অর্থনৈতিক উন্নয়ন ব্যাহত হচ্ছে। আমরা সংশ্লিষ্ট প্রশাসনকে অবগত করেছি কিন্তু তারা এ ব্যাপারে উদাসীন। সুতরাং অনতিবিলম্বে অবৈধ ভাবে দখল হয়ে যাওয়া হাটের জায়গা উদ্ধার করে এই গরুর হাট পুনরায় চালু করার দাবী জানাচ্ছি।

বর্তমান সংশ্লিষ্ট গরুর হাটের ইজারাদার মো: আনিসুর রহমান মুঠোফোনে জানায়, জায়গা সংক্রান্ত জটিলতা শেষ করে হাটের পরিবেশ ফিরিয়ে এনে দ্রæত এই গরুর হাট পুনরায় চালু করা হবে। ইতিমধ্যে সদর ইউপি চেয়ারম্যানের সাথে এ বিষয়ে কথা বলেছি। আমরা সবাই পুরোনো এই হাট চালুর বিষয়ে আন্তরিক।

গরুর হাট বিষয়ে নাগরপুর সদর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো: কুদরত আলী বলেন, নাগরপুরের ঐতিহ্যবাহী গরুর হাট বন্ধ হওয়ায় অন্যতম কারণ হচ্ছে হাটের জন্য নির্ধারিত জায়গা অবৈধ ভাবে দখল হয়ে যাওয়া ও অতিরিক্ত খাজনা আদায় করা। আমার পরিকল্পনা আছে এই গরুর হাট পুনরায় চালু করার। আমি হাট সংশ্লিষ্ট ইজারাদারের সাথে কথা বলেছি।

এই হাটের সরকারি অনুমোদন আছে। আগামী বছর থেকে এই জনপ্রিয় গরুর হাট পুনরায় চালু করা হবে।উল্লেখ্য, বর্তমানে নাগরপুর সদর এলাকায় বুধবার সাপ্তাহিক হাট পরিচালিত হচ্ছে। পুরাতন গরুর হাট এর স্থানে হাঁস-মুরগি কেনাবেচা হয়ে থাকে। পূর্বের ন্যায় হাট জমজমাট
নেই বললেই চলে।

আরও পড়ুনঃ ইসলামপুর চরপুটিমারি ইউনিয়নে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
© All rights reserved © 2022 Dashani 24
Theme Customized By Shakil IT Park